ডিজিটাল মার্কেটিং কি এবং ফ্রিল্যান্সিং সেক্টরে এর কেমন চাহিদা রয়েছে?

ডিজিটাল মার্কেটিং কি এবং ফ্রিল্যান্সিং সেক্টরে এর কেমন চাহিদা রয়েছে?


ডিজিটাল মার্কেটিং কি? 

ডিজিটাল মার্কেটিং আমাদের সকলের কাছেই অনেক সুপরিচিত একটি শব্দ।  ডিজিটাল মার্কেটিং বিষয়টি জানার পূর্বে আমাদেরকে অবশ্যই মার্কেটিং সম্পর্কে জানতে হবে। 

সাধারণ অর্থে মার্কেটিং বলতে কোন একটি ব্র্যান্ড, পণ্য অথবা সেবার প্রচারণা চালানোকেই বোঝানো হয়। এই ব্র্যান্ড অথবা পণ্যটি হতে পারে ডিজিটাল আবার হতে পারে ফিজিক্যাল। আর এই প্রচারণা বর্তমান সময়ে সাধারণত দুইভাবে করা হয়ে থাকে। 

উদাহরণ হিসেবে ধরা যায়ঃ (1) অনলাইন মাধ্যম এবং  (২) অফলাইন মাধ্যম । যেসকল উপায় অবলম্বন করে ইন্টারনেটের মাধ্যমে কোন একটি পণ্য, ব্র্যান্ড অথবা সেবাকে সকলের  কাছে পৌঁছে দেয়া হয়ে থাকে তাকেই বলা হয় ডিজিটাল মার্কেটিং। 

ইন্টারনেটের ব্যবহার ছাড়া ডিজিটাল মার্কেটিং পুরোপুরি অসম্পূর্ণ। পুরো ইন্টারনেট দুনিয়াতে সঠিক উপায়ে মার্কেটিং করার মাধ্যমে বিপুল সংখ্যক লোকের কাছে নিজেদের পণ্য, ব্র্যান্ড অথবা সেবাকে খুব অল্প সময়ের মধ্যেই পৌঁছে দেয়া যায়। 

এর ফলে তুলনামূলকভাবে খুব দ্রুত কোনো প্রতিষ্ঠান তাদের কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্য অর্জন্যে সক্ষম হয়। যা তাদের প্রসারকে আরও এক ধাপ সামনে এগিয়ে নিয়ে যায়। 

পৃথিবীর অন্যতম বড় বড় ডিজিটাল প্লাটফর্ম গুলোর মাধ্যমে মার্কেটিং করা হলে সফল হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায়। 

কারণ, পৃথিবী জুড়ে এসকল প্লাটফর্মের প্রচুর পরিমাণে ব্যবহারকারী রয়েছে। যার মধ্যে রয়েছেঃ Google, Facebook, Instagram, Twitter, WhatsApp, LinkedIn, Pinterest, Reddit ইত্যাদি। 


ডিজিটাল মার্কেটিং এর বিভিন্ন শাখা রয়েছে। এর মধ্যে গুরুত্তপূর্ন কয়েকটি শাখা হলোঃ 

১। সার্চ ইঞ্জিন মার্কেটিং 

২। সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং 

৩। কনটেন্ট মার্কেটিং 

৪। ইমেইল মার্কেটিং 

৫। এফিলিয়েট মার্কেটিং 


এখন কথা হচ্ছে যে, ডিজিটাল মার্কেটিং পেইড না ফ্রি? 

ডিজিটাল মার্কেটিং মূলত দুইভাবে করা হয়ে থাকে। উদাহরণঃ একটি হলো ফ্রি মার্কেটিং অপরদিকে অন্যটি হলো পেইড মার্কেটিং।  

ফ্রি মার্কেটিংঃ 

কোনো প্রকার অর্থের সাহায্য ছাড়াই নিজের দক্ষতাকে কাজে লাগিয়ে ইন্টারনেটে থাকা বিভিন্ন প্লাটফর্মকে ব্যবহার করে কোনো পণ্য, ব্র্যান্ড অথবা সেবার প্রচারণা চালানোকেই ফ্রি মার্কেটিং বলা হয়। 

ফ্রি মার্কেটিং এ সরাসরি অর্থের ব্যবহার করা হয়না এবং এর দ্বারা প্রসার লাভ করতে কোনো কোম্পানির খুব বেশি সময় লেগে যায়। যার ফলে তাদের সফলতা অর্জন করতেও অনেক সময় পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হয়। 

পেইড মার্কেটিংঃ 

পেইড মার্কেটিং এর ক্ষেত্রে বিভিন্ন প্লাটফর্মকে সরাসরি অর্থ প্রদান করা হয়ে থাকে। যেহেতু তাদেরকে অর্থ প্রদান করা হয়ে থাকে তাই এখানে বিজ্ঞাপনদাতাকে নিজে থেকে তেমন কষ্ট করার প্রয়োজন পড়েনা। 

কারণ, সেই প্লাটফর্মগুলো নিজেরাই পণ্য, ব্র্যান্ড অথবা সেবাকে লক্ষ্যযুক্ত ব্যবহারকারীদের কাছে পৌঁছে দেয়। ফলে, পেইড মার্কেটিং এর দ্বারা অল্প সময়ের মধ্যেই সম্ভাবনার মুখ দেখতে পাওয়া যায় । 


ফ্রিল্যান্সিং সেক্টরে ডিজিটাল মার্কেটিং এর চাহিদাঃ 

আজকের দিনে ডিজিটাল মার্কেটিং অনেক সম্ভাবনাময় একটি ক্ষেত্র। মার্কেটিং ছাড়া কোনো কোম্পানি, ইন্ডাস্ট্রি এবং ব্যবসা প্রতিষ্ঠান এর উন্নতি এবং সমৃদ্ধি কখনো ভাবাই যায়না। আর এই কারণেই ডিজিটাল মার্কেটিং এর চাহিদা দিন দিন বেড়েই চলেছে। 

একজন সফল ডিজিটাল মার্কেটার তার অর্জিত দক্ষতা দিয়ে সকল ধরনের ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস গুলোতে কাজ করতে পারে। তিনটি শীর্ষ স্থানীয় ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস হলোঃ Fiverr, Upwork, Freelancer । 

এছাড়াও আরও অনেক মার্কেটপ্লেস আছে যেখানে একজন ডিজিটাল মার্কেটার একাউন্ট তৈরি করে তার সার্ভিস বিক্রি করতে পারে। 

একজন সফল ডিজিটাল মার্কেটার এইসকল ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস গুলোতে কাজ করার পাশাপাশি ঘরে বসেই দেশের ভিতরের এবং বাইরের বিভিন্ন কোম্পানিতে দক্ষতার সাথে কাজ করে যেতে পারে। 

আর ডিজিটাল মার্কেটারদের বেতন নির্ভর করে তাদের দক্ষতার উপরে । যার দক্ষতা যতো বেশি তার বেতনও ততোই বেশি হিসেবে ধরা হয়ে থাকে। 

একজন বিগিনার এবং ফ্রেসার ডিজিটাল মার্কেটার এর বেতন বার্ষিক ৪-৫ লক্ষ টাকা হয়ে থাকে। তাদের দক্ষতা বৃদ্ধির সাথে সাথে বেতনও বৃদ্ধি পায়। 

এক পরিসংখ্যানে বলা হয়েছে যে, ২০১৬ থেকে ২০২০  সাল পর্যন্ত ডিজিটাল মার্কেটারদের হায়ারিং রেট ৩২% বৃদ্ধি পেয়েছে । 

এবং সকল ধরনের প্রতিষ্ঠান, ইন্ডার্ট্রি তাদের প্রসারের লক্ষ্যে মার্কেটিং এর পিছনে প্রচুর অর্থ ব্যয় করছে । এ থেকে বলা যায় যে ভবিষ্যৎ ক্যারিয়ার হিসেবে ডিজিটাল মার্কেটিং কে গ্রহণ করা যেতেই পারে। 

2 Comments

  1. অনেক ধন্যবাদ ভাই ‌‌। আপনার কথা গুলো খুব সহজ ও সুন্দর ভাবে প্রকাশ করেছেন যা খুব সহজেই বোধগম্য। আর আমার অজানা অনেক কথা যা এইখানে জানতে পারি এবং মনে থাকা প্রশ্নের উত্তর পাই। সাথেই আছি ইনশাআল্লাহ,, ধন্যবাদ ভাই

    ReplyDelete
    Replies
    1. তোমাকে অনেক ধন্যবাদ ভাইয়া আমাদের সাথে থাকার জন্য। তুমি চাইলে আমাদের ওয়েবসাইটের থাকা আরও অন্যান্য কন্টেন্টগুলো পড়ে তোমার মেধাকে সমৃদ্ধ করতে পারো যেটি তোমার বাস্তব জীবনে অনেক উপকারে আসবে।

      Delete
Previous Post Next Post