ফেইসবুক মার্কেটিং কি এবং এটি কিভাবে করতে হয় তার বেসিক ধারণা ।

ফেইসবুক মার্কেটিং কি এবং এটি কিভাবে করতে হয় তার বেসিক ধারণা


ফেইসবুক  মার্কেটিংঃ 

আমরা সকলেই জানি যে, ফেইসবুক হচ্ছে পৃথিবীর সবথেকে জনপ্রিয় একটি সোশ্যাল মিডিয়া প্লাটফর্ম। ফেইসবুকে সাধারণত আমারা পোস্ট, লাইক, রিয়েক্ট, কমেন্ট, শেয়ার ইত্যাদি করে থাকি। কিন্তু ফেইসবুকে ব্যবসা পরিচালনা করার জন্য একটি প্লাটফর্ম আছে যেটিকে বলা হয় ফেইসবুক বিজনেস ম্যানেজার । 

আর এই ফেইসবুক বিজনেস ম্যানেজার থেকেই বিভিন্ন ব্র্যান্ড, পণ্য এবং সেবার জন্য বিজ্ঞাপন চালানো হয়ে থাকে। তাই ডিজিটাল মার্কেটিং এর অনেক বড় একটি অংশ জুড়ে রয়েছে ফেইসবুক মার্কেটিং। ফেইসবুক মার্কেটিং এর জ্ঞান ছাড়া কেউ কখনো সম্পূর্ণরূপে ডিজিটাল মার্কেটার হতে পারেনা । 


কিভাবে ফেইসবুক মার্কেটিং করতে হয়ঃ 

ফেইসবুক মার্কেটিং কিভাবে করতে হয় একটিমাত্র আর্টিকেল এর দ্বারা এটি বোঝানো কখনোই সম্ভব নয়। যেহেতু ডিজিটাল মার্কেটিং এর একটি বিশাল অংশ ফেইসবুকের দখলে রয়েছে তাই এটির কার্যকলাপও অনেক বিস্তৃত। 

এই আর্টিকেল এ আমরা ফেইসবুক মার্কেটিং এর ওভারভিউ সম্পর্কে জানব । ফেইসবুকে মার্কেটিং করার জন্য সর্বপ্রথম আমাদের যেটি দরকার সেটি হলো একটি ফেইসবুক একাউন্ট। ফেইসবুক একাউন্ট তৈরি করা হয়ে গেলে ব্র্যান্ড, পণ্য অথবা সার্ভিস এর সাথে মিল রেখে একটি ফেইসবুক পেজ তৈরি করতে হবে। 

ফেইসবুক পেজটি যেন সাধারণ কোনো পেজ এর মতো না হয় সেদিকে লক্ষ্য রাখতে হবে। তাই ফেসবুক পেজটিকে যথাসম্ভব প্রফেশনাল লুক দিতে হবে। মনে রাখতে হবে, ফেইসবুক পেজটির নাম, ক্যাটেগরি, প্রোফাইল ইমেজ এবং কাভার ইমেজ যেন সেই ব্র্যান্ড এবং সার্ভিসকে ফুটিয়ে তুলে। 

প্রফেশনাল ফেইসবুক পেজ ক্রিয়েট এবং সেটআপ করা হয়ে গেলে ফেইসবুকে একটি বিজনেস ম্যানেজার একাউন্ট এবং এডস একাউন্ট তৈরি করতে হবে। 

এডস একাউন্ট বলতে, যেই একাউন্ট এর মাধ্যমে ফেইসবুকে বিজ্ঞাপন দেয়া হয় তাকেই বুঝানো হয়ে থাকে। তারপর, যেই ফেইসবুক পেজ থেকে বিজ্ঞাপন দেয়া হবে সেই পেজটিকে বিজনেস ম্যানেজারের সাথে যুক্ত করে দিতে হবে। অন্যথায় সেই পেজ থেকে বিজ্ঞাপন চালানো সম্ভব হবেনা। 

এখন, যেই ব্র্যান্ড, পণ্য অথবা সেবার জন্য মার্কেটিং করতে হবে তাদের সাথে সম্পর্কিত কিছু ছবি এবং ভিডিও সংগ্রহ করতে হবে। উল্লেখ্যঃ মার্কেটিং করার ক্ষেত্রে বিজ্ঞাপনে যদি ছবির পরিবর্তে মানসম্মত কোনো ভিডিও ব্যবহার করা হয় তাহলে সেই বিজ্ঞাপনটি বেশি ফলপ্রসূ হয়ে থাকে। তাই  বিজ্ঞাপনে আমাদেরকে সবসময় ভিডিও ব্যবহার করার অভ্যাস গড়ে তুলতে হবে। 

বিজ্ঞাপনটি তৈরি করার সময় বিজ্ঞাপনের প্রাইমারি টেক্সট, হেডলাইন এবং ডেসক্রিপশন এমনভাবে লিখতে হবে যেন সেটি খুব সহজেই কোনো টার্গেটেড কাস্টমারের দৃষ্টিকে আকর্ষণ করতে পারে। সেজন্য প্রাইমারি টেক্সট এর মধ্যে ইমোজি ব্যবহার করতেই হবে। 

কারণ, কোনো বাক্যে ইমোজি ব্যবহার করলে সেই বাক্যটির অর্থ ব্যবহারকারীদের কাছে অনেক স্পষ্ট হয়ে যায় এবং যার ফলে তারা পণ্য এবং সেবার প্রতি সহজেই আগ্রহী হয়ে উঠে । 

এটি ছিল ফেইসবুক মার্কেটিং এর একটি সম্পূর্ণ ওভারভিউ। একটি সফল এবং কার্যকরী ফেইসবুক বিজ্ঞাপন চালানোর ক্ষেত্রে উল্লিখিত বিষয়গুলো মেনে চলা একান্তই জরুরী। 

কেননা, এই আর্টিকেল এ লাভজনক ফেইসবুক বিজ্ঞাপনের মূল কৌশল এবং বিষয়গুলো তুলে ধরা হয়েছে খুবই স্পষ্টভাবে আর এই বিষয়গুলো মাথায় রেখে কোনো ফেইসবুক বিজ্ঞাপন চালানো হলে সেটি অবশ্যই লাভজনক হবে বলে আশা করাই যায় ।  

2 Comments

  1. ইনশাআল্লাহ,, ভাই আপনার কথা গুলো খুব সহজ ও সাবলীল তাই বুঝতে পারছি সহজেই ,, ধন্যবাদ ভাই

    ReplyDelete
  2. তোমাকে সবসময়ই স্বাগতম আমাদের ওয়েবসাইটে ডেইলি কন্টেন্ট পড়ার জন্য। আশা করি তুমি আমাদের এই প্লাটফরম থেকে আরও নিত্য নতুন অনেক বিষয় শিখতে পারবে। ধন্যবাদ।

    ReplyDelete
Previous Post Next Post