অবজেক্ট ওরিয়েন্টেড প্রোগ্রামিং ও প্রসিডিউর ওরিয়েন্টেড প্রোগ্রামিং কাকে বলে এবং এদের বৈশিষ্ট্য।

অবজেক্ট ওরিয়েন্টেড প্রোগ্রামিং ও প্রসিডিউর ওরিয়েন্টেড প্রোগ্রামিং কাকে বলে এবং এদের বৈশিষ্ট্য।


এই আর্টিকেল এ আমরা অবজেক্ট ওরিয়েন্টেড প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ ও প্রসিডিউর ওরিয়েন্টেড প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ এর সংজ্ঞা এবং এদের বৈশিষ্ট্য সম্পর্কে জ্ঞান লাভ করব। 


অবজেক্ট ওরিয়েন্টেড প্রোগ্রামিংঃ 

যে ধরনের প্রোগ্রামিং এর ক্ষেত্রে ফাংশন এর চেয়ে ডাটার গুরুত্ব বেশি দেয়া হয় তাকে অবজেক্ট ওরিয়েন্টেড প্রোগ্রামিং বলা হয়। 

কয়েকটি অবজেক্ট ওরিয়েন্টেড প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ এর উদাহরণঃ জাভা, সি++, সি শার্প, পাইথন, সিমুলা, পার্ল, রুবি, পিএইচপি ইত্যাদি। 


অবজেক্ট ওরিয়েন্টেড প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ এর বৈশিষ্ট্যসমূহঃ  

 ১। অবজেক্ট ওরিয়েন্টেড প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ এ ফাংশন এর চেয়ে ডাটার গুরুত্ব অনেক বেশি। 

২। প্রসিডিউর প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ এর যে সকল সমস্যা রয়েছে সেগুলোকে সমাধান করার জন্যই অবজেক্ট ওরিয়েন্টেড প্রোগ্রামিং এর উদ্ভব। 

৩। অবজেক্ট ওরিয়েন্টেড প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ এর সাহায্যে অনেক বড় ধরনের সমস্যাকে ছোট ছোট অংশে বিভক্ত করা হয় এবং সমাধান করা হয়ে থাকে, আর এই ছোট ছোট অংশগুলোকে অবজেক্ট বলা হয়। 

৪। অবজেক্ট ওরিয়েন্টেড প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ বাস্তব জীবনের সাথে সম্পর্কিত। 

৫। এই প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ এ ভুল-ত্রুটি নির্ণয়, প্রোগ্রাম টেস্টিং, ডিবাগিং এবং মেইনটেন্যান্স তুলনামূলক সহজতর।  

৬। এই প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ এ প্রোগ্রামের একই অংশ বার বার লিখার প্রয়োজন পড়েনা যার ফলে প্রোগ্রামের আকার ছোট হয় এবং মেমরিতে কম পরিমাণ স্পেস দরকার হয়। 

৭। যেকোনো সময় প্রোগ্রামের যেকোনো ধরনের পরিবর্তন ঘটানো সম্ভব এই ল্যাঙ্গুয়েজ এ। 

৮। এর অন্যতম একটি বৈশিষ্ট্য হলো ডাটা হাইডিং, এই কারণে নিরাপত্তা বিঘ্নিত হওয়ার সম্ভাবনা অনেক কম। 


প্রসিডিউর ওরিয়েন্টেড প্রোগ্রামিংঃ 

যে ধরনের প্রোগ্রামিং এর ক্ষেত্রে ডাটার চেয়ে ফাংশন এর গুরুত্ব বেশি দেয়া হয় তাকে তাকে প্রসিডিউর ওরিয়েন্টেড প্রোগ্রামিং বলে। 

কয়েকটি প্রসিডিউর ওরিয়েন্টেড প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ এর উদাহরণঃ সি, কোবোল, ফরট্রান, বেসিক, এডা, এলগল ইত্যাদি। 


প্রসিডিউর ওরিয়েন্টেড প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ এর বৈশিষ্ট্যসমূহঃ  

১। এই ধরনের প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ এর ক্ষেত্রে ডাটার চেয়ে ফাংশন এর গুরুত্ব বেশি দেয়া হয়। 

২। অবজেক্ট ওরিয়েন্টেড প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ তৈরি করার আগে প্রসিডিউর ওরিয়েন্টেড প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ অনেক জনপ্রিয় ছিল। 

৩। অনেক বড় ধরনের সমস্যাকে ছোট ছোট অংশে বিভক্ত করে সমাধান করা হয়ে থাকে এবং ছোট ছোট অংশগুলোকে মডিউল বলা হয়। 

৪। প্রসিডিউর ওরিয়েন্টেড প্রোগ্রামিং হলো অ্যাকশন ওরিয়েন্টেড অর্থাৎ বাস্তব জীবনের সাথে এর কোনো মিল নেই। 

৫। প্রসিডিউর ওরিয়েন্টেড প্রোগ্রামিং এ ভুল-ত্রুটি নির্ণয়, প্রোগ্রাম টেস্টিং, ডিবাগিং এবং মেইনটেন্যান্স তুলনামূলক কঠিন। 

Post a Comment

Previous Post Next Post