ওয়্যারলেস কীবোর্ডের গঠন, কার্যনীতি এবং বৈশিষ্ট্য।

ওয়্যারলেস কীবোর্ডের গঠন, কার্যনীতি এবং বৈশিষ্ট্য।

ওয়্যারলেস কীবোর্ডঃ 

কম্পিউটার পেরিফেরালস বিশেষত কীবোর্ড ও মাউসের ক্ষেত্রে RF টেকনোলজি ব্যবহৃত হয়। ওয়্যারলেস কীবোর্ড হচ্ছে এমন এক ধরনের বিশেষ কীবোর্ড যা ক্যাবলের পরিবর্তে রেডিও ওয়েভ অথবা ইনফ্রারেড লেজার টেকনোলজি ব্যবহার করে কম্পিউটারের USB পোর্টে সংযুক্ত ওয়্যারলেস অ্যাডাপ্টার এর মাধ্যমে কম্পিউটারের সঙ্গে সংযুক্ত হয় এবং কম্পিউটারে প্রয়োজনীয় সিগন্যাল বা ডাটা ইনপুট করে। 

ওয়্যারলেস কীবোর্ডের গঠনঃ 

একটি ওয়্যারলেস কীবোর্ড অনেকগুলো অংশের সমন্বয়ে গঠিত। এগুলোর নিম্নরূপঃ 

RF রিসিভারঃ 

RF রিসিভারটি সাধারণত USB পোর্টের মাধ্যমে কম্পিউটারের সঙ্গে সংযুক্ত থাকে। এটি RF ট্রান্সমিটার কর্তৃক প্রেরিত RF সিগন্যালকে রিসিভ করে এবং পরবর্তী প্রয়োজনীয় কার্যাদি সম্পন্ন করার উদ্দেশ্যে সিগন্যালকে কম্পিউটারে প্রেরণ করে। 

RF ট্রান্সমিটারঃ 

ওয়্যারলেস কীবোর্ডের RF  ট্রান্সমিটারটি কীবোর্ডের সাথেই সংযুক্ত থাকে। এর কাজ হলো কী-মেট্রিক্স  হতে উৎপন্নকৃত সিগন্যালকে রেডিও সিগন্যালের মাধ্যমে RF রিসিভারের কাছে প্রেরণ করা। 

 
মাইক্রো কন্ট্রোলারঃ 

ওয়্যারলেস কীবোর্ডের RF ট্রান্সমিটার এবং RF রিসিভার উভয় অংশের সাথেই দুটি আলাদা আলাদা মাইক্রো কন্ট্রোলার সংযুক্ত থাকে। 

ট্রান্সমিটারের সঙ্গে সংযুক্ত মাইক্রোকন্ট্রোলারের কাজ হলো কী-মেট্রিক্স হতে উৎপন্নকৃত সিগন্যালকে এতে পূর্ব থেকে সন্নিবেশিত নির্দিষ্ট কোনো সফটওয়্যার ব্যবহার করে এনকোড করা। 

অপরদিকে রিসিভারের সাথে সংযুক্ত মাইক্রো কন্ট্রোলারের কাজ হলো রিসিভকৃত এনকোডেড সিগন্যালকে ডিকোড করে সমতুল্য ইলেক্ট্রিক্যাল সিগন্যাল তৈরি করা। 

ব্যাটারিঃ 

ওয়্যারলেস কীবোর্ড সাধারণত ইলেক্ট্রিসিটির পরিবর্তে ব্যাটারির মাধ্যমে পরিচালিত হয়। প্রায় সকল ওয়্যারলেস কীবোর্ডে ৪ টি AA, 1.2-1.5 ভোল্ট, লিথিয়াম ব্যাটারি ব্যবহার করা হয়। 

অ্যামপ্লিফায়ারঃ 

অ্যামপ্লিফায়ারটিও অবশ্য RF ট্রান্সমিটারের সঙ্গেই সংযুক্ত অবস্থায় থাকে। এর কাজ হলো এনকোডকৃত সিগন্যালকে আমপ্লিফাই করে RF রিসিভারের কাছে পাঠানো। 

ওয়্যারলেস কীবোর্ডের কার্যনীতিঃ 

 যখন কীবোর্ডের কোনো কী প্রেস করা হয় অথবা কোনো কমান্ড প্রয়োগ করা হয় কী-মেট্রিক্স তখন প্রেসকৃত ঐ কি অথবা কমান্ডের জন্য সমতুল্য কী কোড উৎপন্ন করে। RF ট্রান্সমিটারের সঙ্গে সংযুক্ত মাইক্রোকন্ট্রোলার উৎপন্নকৃত কী কোডকে এনকোড করে। 

পরবর্তীতে এনকোডকৃত সিগন্যালকে অ্যামপ্লিফায়ার দ্বারা অ্যামপ্লিফাই করে RF ট্রান্সমিটার ঐ সিগন্যালকে রেডিও ওয়েভের মাধ্যমে RF রিসিভারের কাছে প্রেরণ করে। 

RF রিসিভারটি RF ট্রান্সমিটার কর্তৃক প্রেরিত সিগন্যালকে রিসিভ করে এবং রিসিভকৃত সিগন্যালকে ডিকোড করে পরবর্তী প্রয়োজনীয় কার্যাদি সম্পন্ন করার উদ্দেশ্যে কম্পিউটারে প্রেরণ করে। 

সবশেষে, কম্পিউটার কীবোর্ডের নির্দেশনা অনুযায়ী প্রয়োজনীয় কার্যাদি সম্পন্ন করে। 

ওয়্যারলেস কীবোর্ডের বৈশিষ্ট্যঃ 

১। সাধারণ কীবোর্ডের তুলনায় ওয়্যারলেস কীবোর্ডের দাম বেশি হয়ে থাকে। 

২। সাধারণ কীবোর্ড ব্যবহারের পূর্বে কনফিগার করতে হয়না কিন্তু ওয়্যারলেস কীবোর্ড কনফিগার করতে হয়। 

৩। ওয়্যারলেস কীবোর্ডের ক্ষেত্রে আলাদা ব্যাটারির প্রয়োজন হয়। 

৪। অনেকসময় সাধারণ কীবোর্ডের তুলনায় ওয়্যারলেস কীবোর্ডকে ধীরগতির মনে হতে পারে। 

৫। এটি সহজে স্তানান্তর যোগ্য। 

৬। এর কমিউনিকেশন দূরত্ব ২-৩ মিটার। 

৭। ব্যবহারের দিক থেকে ওয়্যারলেস কীবোর্ড অন্যান্য কীবোর্ড থেকে অনেক বেশি ফ্লেক্সিবল। 

৮। কম্পিউটারের সাথে ওয়্যারলেস কীবোর্ড সংযুক্ত হওয়ার জন্য কোনো ক্যাবল লাগেনা। 

Post a Comment

Previous Post Next Post